;
 
For the best experience, open
https://m.sangbad24online.in
on your mobile browser.

ফুটপাত থেকে রাজপ্রাসাদ, সিনেমার গল্পকেও হার মানাবে মিঠুনের দত্তক কন্যার জীবনকাহিনী

2 months ago | Web Desk
ফুটপাত থেকে রাজপ্রাসাদ  সিনেমার গল্পকেও হার মানাবে মিঠুনের দত্তক কন্যার জীবনকাহিনী
Advertisement

 

Advertisement

টলি বলি দুই মিলিয়ে এককালে রাজ করেছেন তিনি। সামান্য একজন স্ট্রিট ডান্সার থেকে হয়ে উঠেছিলেন বলিউড ও টলিউডের স্টার। তাই হয়তো তাকে বলিউডের ডিসকো ডান্সার বলেই বেশিরভাগ মানুষ চেনে। এতক্ষণে হয়তো বুঝে গিয়েছেন এখানে কার কথা বলছি তিনি আর কেউ নন সকলের প্রিয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী।

 

Advertisement

তবে এককালে দুই ইন্ডাস্ট্রি জুড়ে রাজ করলেও বর্তমানে সিনেমার পর্দায় তার সেভাবে দেখা মেলে না। তবে বেশ কিছু ডান্স রিয়েলিটি শো-তে তাকে মাঝে মাঝেই দেখা। এছাড়া বয়সের সাথে সাথে শরীরে বাসা বেঁধেছে বেশ কিছু রোগ। মাঝেমাঝেই সংবাদের শিরোনামে ভেসে ওঠে তার অসুস্থতার কথা। কিন্তু অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী যেরকম বড় অভিনেতা সেরকমই তার মন।

 

ঘটনাটি বেশ কয়েক বছর আগেকার। কলকাতার রাস্তার পাশে একটি ডাস্টবিনে বেশকিছু পথচারী দেখতে পান একটি কন্যা শিশুকে। মূলত কন্যা সন্তান হওয়ার জন্যই তাকে ডাস্টবিনে ফেলে দিয়েছিল তার মা-বাবা। কিন্তু সেই মেয়ের ভাগ্যে হয়তো অন্য কিছু লেখা ছিল। তাই খবর পাওয়া মাত্র পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করে সেই শিশুকে এবং তার দায়িত্ব নেয় একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। কিন্তু ঘটনাটি অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর কানে যাওয়া মাত্রই চুপ করে বসে থাকেন না।

 

বহুদিন ধরেই একটি কন্যা সন্তানের আশা ছিল মিঠুন চক্রবর্তীর। তাই খবর পাওয়া মাত্রই পৌঁছে যান সেই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কাছে এবং সেই মেয়েটিকে দত্তক নেন অভিনেতা ও তার স্ত্রী যোগিতা বালি। মেয়েটিকে প্রথম দেখতেই মায়া জন্মে গিয়েছিল মিঠুন চক্রবর্তীর। তাই সারারাত মেয়েটিকে কোলে করে নিয়েই সমস্ত আইনি সমস্যা মিটিয়ে ছিলেন অভিনেতা।

সমস্ত আইনি প্রক্রিয়া শেষ করে অবশেষে বাড়ি নিয়ে যান সে কন্যাশিশুটিকে। সাথে মেয়েটিকে নিজের পরিচয় দেন এবং নাম রাখেন দিশানী চক্রবর্তী। তিন দাদার মাঝে বেশ আদরে বড় হয়েছেন দিশানী। পাশাপাশি মিঠুনেরও খুব আদুরে তার এই কন্যা‌। তাই সবসময় আদরে ভরে রাখেন মেয়েকে। অবশ্য মেয়েও বাবাকে ছাড়া কিছু বোঝেনা। দিশানীর সাথে তার বাবা অর্থাৎ অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর দারুন সম্পর্ক।

 

কিন্তু সেই মেয়ে এখন কোথায় তা কারো জানা নেই। সেই ছোট্ট দিশানী এখন প্রায় যুবতী হয়ে গিয়েছে। তাই সিনেমা জগতে নিজের পরিচয় তৈরি করতে রীতিমতো প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন তিনি। সেজন্য নিউইয়র্ক ফিল্ম একাডেমি থেকে ফিল্ম স্টাডি নিয়ে পড়াশোনা করছেন তিনি। যুবতী দিশানীর সাথে টলি-বলির একাধিক পরিচালক ও অভিনেতা অভিনেত্রীদের সাথে যোগাযোগ রয়েছে তার। তাই অনেকেই মনে করছেন নিজের বাবার মতোই অভিনয় জগতে বেশ নাম কামাতে চলেছেন দিশানী।

তবে ইতিমধ্যে তিনি বেশকিছু প্রজেক্টে কাজ করে ফেলেছেন। ২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া ‘Holy Smoke’ সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনয় জগতে পা রাখেন তিনি। যেই ছবির পরিচালক ছিলেন তার দাদা অর্থাৎ মিঠুন চক্রবর্তীর ছেলে উশমে চক্রবর্তী। এরপরও থেমে থাকেননি মিঠুন কন্যা। বেশ কিছু শর্ট ফিল্মে অভিনয় করেছেন তিনি। তবে নিজের ক্যারিয়ার গড়ার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ জনপ্রিয় দিশানী। ইতিমধ্যেই হাজার হাজার ফলোয়ার রয়েছে তার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে। এছাড়াও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন হট ফটোশুট এর মাধ্যমে নেটিজেনদের মাতিয়ে রাখেন তিনি।

Advertisement
Tags :