;
 
For the best experience, open
https://m.sangbad24online.in
on your mobile browser.

১ কোটি টাকার চাকরি ছেড়ে শুরু করেন নিজের কসমেটিক ব্র্যান্ড, আজ সেই ব্যবসার ১০০ কোটি টার্নওভার!

3 months ago | Web Desk
১ কোটি টাকার চাকরি ছেড়ে শুরু করেন নিজের কসমেটিক ব্র্যান্ড  আজ সেই ব্যবসার ১০০ কোটি টার্নওভার
Advertisement

ম্যানেজমেন্ট পাস করে এক কোটি টাকা মাইনে চাকরি পেয়েছিলেন। অথচ সেই চাকরি ছেড়ে কসমেটিকসের ব্যবসা শুরু করেছেন এক তরুণী। মাত্র 23 বছর বয়সী কয়েক কোটি টাকা রোজগার করছেন তিনি । তার জীবনকাহিনী হার মানাবে যে কোন সিনেমার গল্প কে। দিল্লি বাসিন্দা বিনীতা সিং বর্তমানে সারা ভারতের মহিলা এন্ট্রিপ্রিনিয়ারদের মধ্যে একজন। কিন্তু কীভাবে এই ব্যবসা করার কথা মাথায় এলো তার?

Advertisement

1984 সালে দিল্লিতে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। গুজরাটের আহমেদাবাদে আইটিআই থেকে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন তিনি। এরপর এক কোটি টাকা মাইনের একটি বৈদেশিক সংস্থায় চাকরি পেয়েছিলেন। কিন্তু সেই চাকরির অফার ছেড়ে দেন। মাত্র 23 বছর বয়সে এমন হঠকারিতার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় পরিবারের সকলেই খারাপ চোখে দেখেছিল। এরপর তিনি আহমেদাবাদ থেকে সোজা দিল্লিতে চলে আসেন। এক শিক্ষকের পরামর্শে এক বছর পর মুম্বাইতে চলে যান । সেখানে গিয়ে তিনি দেখতে পান মেয়েদের কসমেটিকসের বিপুল চাহিদা। পৈত্রিক কিছু সম্পত্তির উপর ভিত্তি করে এবং নিজের জমানো পুঁজি দিয়ে তৈরি করেন একটি নতুন কসমেটিক ব্র্যান্ড নাম দেন সুগার।

Advertisement

2012 সালের মধ্যে এই ব্যান্ড সারা পৃথিবীতে খ্যাতি লাভ করে। ভারতের প্রায় কুড়িটি শহরে অন্তত 15 হাজার মহিলা এখানে নিযুক্ত আছেন। বর্তমানে 100 কোটি টাকার মালিক বিনীতা। তার ব্যবসায়িক অংশীদার হলেন কৌশিক মুখোপাধ্যায়। যিনি এই ব্র্যান্ডটি তৈরি করতে বিধি তাকে আর্থিক এবং মানসিক দিক থেকে সাহায্য করেছিলেন। তারা দুজনেই আইআইটি থেকে পাস আউট করেছেন। বিনীতার সর্বক্ষণের সঙ্গী ছিলেন কৌশিক। এবার ব্যবসায় সফলতার মুখ দেখে একে অপরকে জীবনসঙ্গী করার সিদ্ধান্ত নেন। বর্তমানে তারা দুই পুত্র ও কন্যা সন্তানের বাবা মা।

শুধুমাত্র নিজের স্বনির্ভর হবেন বলেই অত দামি চাকরি ছেড়ে কসমেটিকসের ব্যবসা শুরু করেছেন। বর্তমানে একাধারে সুগার ব্রান্ডর সিইও এবং একজন ভালো মায়ের ভূমিকা একসাথে পালন করছেন বিনীতা। সেই সঙ্গে তার মাথার উপর ছাতা হয়ে দাঁড়িয়ে আছে তার স্বামী তথা এককালের বন্ধু কৌশিক।

Advertisement
Tags :